ফর্সা হওয়ার সাবানের নাম । Forsha Howar Saban er Nam

ফর্সা হওয়ার সাবানের নাম

ফর্সা হওয়ার সাবানের নাম  আমরা অনেকেই জানিনা। বর্তমান সময়ে ছেলে ও মেয়েরা নিজেদের ত্বক সুন্দর ও ফর্সা দেখানোর জন্য  অনেক ধরনের সাবান ব্যবহার করে। কিন্তু  সবাই জানে না কোন সাবান ত্বকের জন্য উপকারী। অনেক সাবান আছে যেসব ব্যবহারের ফলে ত্বকের সৌন্দর্য নষ্ট হয়ে যায়। এই কারণে ফর্সা হওয়ার সাবান ব্যবহারের আগে আমাদের জানা দরকার সাবান কি কি উপাদান দিয়ে তৈরি।

বর্তমান সময়ে বাজারে অনেক ধরনের সাবান রয়েছে। সেগুলোতে লেখা রয়েছে ফর্সা হওয়ার সাবান।  বর্তমান সময়ে অনেক ধরনের ভুয়া কোম্পানি রয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন কেমিক্যাল দিয়ে  নানা নানা ধরনের ফর্সা হওয়ার সাবান তৈরি করছে। আমরা বাংলাদেশের মানুষ সেটা না বুঝে সাবান গুলো ব্যবহার করে থাকি। যার ফলে আমাদের ত্বকের ওপর বিভিন্ন ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হয়।

বর্তমান সময়ে সকল  ছেলে-মেয়েরা চাই তাকে দেখতে বাকিদের চেয়ে বেশি সুন্দর ও  ফর্সা  দেখায়। কারণ,  ফর্সা মানুষদের দেখতে সুন্দর লাগে। আর আমরা সবাই সুন্দরের পূজারী।

    ফর্সা হওয়া সাবানের নাম

    বর্তমান সময়ে বাজারে অনেক ধরনের ফর্সা হওয়ার সাবান পাওয়া যাচ্ছে। এরমধ্যে কোন সাবান ব্যবহারের ফলে ত্বক ফর্সা হবে সেটা অনেকেই জানেন না।  নিম্নে সাবানের নাম সহ আলোচনা করা হল।

    • 1. Dove soap
    • 2. Aloe Vera
    • 3. Whitening Milk soap
    • 4. Nano Extra White soap
    • 5. Herbal Beauty PAPAYA
    • 6. Classic White
    • 7. PoBo ‍Soap
    • 8. PAPAYA Fiorae
    • 9. Jam soap
    • 10. Dark Spot Remover Soap
    • 11. Jam Tomato Soap

    আরও পড়ুনঃ মেয়েদের ওজন কমানোর ব্যায়াম বা দ্রুত ওজন কমানোর উপায়

    1. Dove soap

    বর্তমান সময়ে একটি জনপ্রিয় সাবান হল Dove soap. বর্তমানে এই সময় সবাই চিনে। Dove soap  সব বয়সের মানুষ ব্যবহার করতে পারে। ছেলে মেয়ে উভয় ব্যবহার করতে পারে। এই  সাবানে সুন্দর হওয়ার অনেক উপাদান রয়েছে। বর্তমান সময়ে ফর্সা হওয়ার সবার মধ্যে অন্যতম Dove soap.

    2. Aloe Vera

    অ্যালোভেরা সাবান প্রাকৃতিক ভাবে তৈরি করা হয়। যার ফলে এই সাবান ব্যবহার করলে ত্বকের কোন ক্ষতি হয় না। এবং  ত্বক নরম থাকে এবং উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে। Aloe Vera  ব্যবহার করলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির পাশাপাশি  ত্বক  কমল  রাখতে সাহায্য করে।

    3. Whitening Milk soap

    Whitening Milk soap   এর নাম শুনেই আপনারা হয়তো বুঝতে পারছে কি কাজের জন্য তৈরি করা হয়েছে। এই  সাবান শুধু ফর্সা হওয়ার জন্য ব্যবহার করা হয়। এই সাবান তৈরি করা হয়েছে দুধ দিয়ে। Whitening Milk soap  ব্যবহারের সাত দিনের মধ্যে ফলাফল বুঝতে পারবেন।

    4. Nano Extra White soap

    এই  সাবান ত্বক ফর্সা করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। এটা খুব উন্নত মানের  সাবান। সাবান তৈরি করা হয়েছে পেঁপে এবং গাজর দিয়ে। এই কারণে সাবান ব্যবহারের ফলে ত্বক ফর্সা ও সুন্দর হয়। বর্তমান সময়ে এই  সাবান বেশ জনপ্রিয়। আপনারা চাইলে সাবান ব্যবহার করতে পারেন।

    5. Herbal Beauty PAPAYA

    Herbal Beauty PAPAYA আপনারা হয়তো এই সাবানের নাম শুনেই বুঝতে পেরেছেন এটা কি ধরনের  সাবান। বর্তমান সময়ে হারবাল একটি বিশ্বস্ত কোম্পানি। Herbal Beauty PAPAYA  সাবান তৈরি করা হয়েছে প্রাকৃতিক ভাবে  পেঁপে থেকে। এ কারণে এটি ব্যবহার ফলে কোন সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা নেই। নির্ভয়  সাবান ব্যবহার করতে পারেন।

    6. Classic White

    Classic White  খুব ভালো  সাবান। এই সাবান ডাক্তার ব্যবহার করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। এইসব আনে কোন ক্ষতিকর কেমিক্যাল দেওয়া থাকে না। ত্বক ফর্সা করার অবদান রয়েছে। এই কারণে অনেকে  এই সাবান ব্যবহার করে থাকেন।

    7. PoBo Soap

    PoBo Soap  এটি অনেক পরিচিত সাবান। অনেকদিন আগে থেকেই মেয়েরা এই সাবান ব্যবহার করে আসছে। এই সাবান ব্যবহারের ফলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায়। এবং দেখতে অনেক ফর্সা লাগে।

    8. PAPAYA Fiorae

     এই সাবান টি অনেক উন্নত মানের। ব্যবহারের ফলে শরীরের সব জায়গায় উজ্জলতা বৃদ্ধি করে।  পেঁপে দিয়ে তৈরি করা হয়েছে  এই সাবান। ত্বক ফর্সা করতে 8. PAPAYA Fiorae গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। তাই আপনারা এই সাবান ব্যবহার করতে  পারেন।

    9. Jam soap

     Jam soap  খুব জনপ্রিয়। বর্তমান সময়ে বাজারে খুব ভালো চলছে।  এটা সবাই ব্যবহার করতে পারে। এলার্জি থাকলেও কোন সমস্যা হয়না। এই কারণে সবাই ব্যবহার করতে পারবেন।

    10. Dark Spot Remover Soap

    Dark Spot Remover Soap  এটি কালো দাগ দূর করে। অনেকের আন্ডার আমস এর দাগ থাকে  সেটি দূর হয়। এর পাশাপাশি ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে এবং ফর্সা করে।  সাবান টি  অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজে লাগে।

    11. Jam Tomato Soap

    Jam Tomato Soap অনেক কার্যকরী। সাবান টি  অনেক পরিচিত। ত্বকের উপরের আবরণ দূর করে। ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি করে। সাবান তৈরি করা হয়েছে টমেটো দিয়ে। এই কারণে কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

    উপরে যে সব সাবানের নাম উল্লেখ করা হলো  সবগুলোই ব্যবহার করতে পারেন। বর্তমান সময়ে এই সবগুলোই ভালো চলছে। সাবান গুলোর  গুণগত মান ভালো।  আপনায় ইচ্ছা অনুযায়ী  যেকোনো একটি ব্যবহার করতে পারেন।

    আরও পড়ুনঃ ভিটামিন ই ক্যাপসুল খেলে কি হয় বা ভিটামিন ই বেশি খেলে কি হয়

    ব্যবহারের সময়

     সাবান আমরা দিনের যেকোনো সময় ব্যবহার করতে পারি। ব্যবহার কিছু নির্দিষ্ট সময়  রয়েছে। ওই সময় ব্যবহার করলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায়। কোন কোন সময় ফর্সা হওয়ার সাবান ব্যবহার করবেন  আলোচনা করা হলো।

    ফর্সা হয়ার সাবান দিনে তিনবার ব্যবহার করা যায়।  সকালে ব্যবহার করা যায়। দুপুরের সময় ব্যবহার করা যায়। এবং রাত্রে ঘুমানোর আগে ব্যবহার করা ভালো। সারাদিনের কাজ কর্মের কারণে চোখের উপর ময়লা পড়ে। রাত্রে ঘুমানোর আগে ভালোভাবে সাবান দিয়ে পরিষ্কার করে ঘুমালে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায়।

     আমার ঘুম থেকে উঠার পর চোখ মুখ তেলতেলে হয়ে থাকে। এই কারণে ঘুম থেকে উঠে ভালো করে সাবান দিয়ে চোখ মুখ পরিষ্কার করতে হয়। তাহলে সারারাত রাত্রের যেসব জীবনু ত্বকের উপর জমা হয় সব পরিষ্কার হয়ে যায়।

    এইসব নিয়ম মেনে ফর্সা হওয়ার সাবান ব্যবহার করলে তাড়াতাড়ি সফলতা পাবেন। অবশ্যই  নিয়মিত ব্যবহার করতে হবে। মাঝে মাঝে বাদ দিলে ভালো ফল পাবেন না। তাই রেগুলার ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন।

    সাবানের উপকারিতা 

     সকল সাবানে উপকারিতা রয়েছে। কারণ, সকল ধরনের সাবান জীবাণু দূর করতে সাহায্য করে। এবং  ময়লা  পরিষ্কার করে। নিয়মিত সাবান ব্যবহারের ফলে গায়ে কোন ধরনের চুলকানি  হয়না।

     নিয়মিত সাবান ব্যবহার করার ফলে রোগ-জীবাণুর থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।  ওষুধের পরিমাণ কবে যায়। এবং সুস্থ সবল জীবন যাপন করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। বর্তমান সময়ে গোসল করতে হবে সাবান অবশ্যই লাগবে। বর্তমানে সাবান ছাড়া গোসলের কথা আল্লাহ পাপ দিবে না।

    সাবানের দাম

     বর্তমান সময়ে সব কিছুরই দাম বেশি। এই কারণে  সাবান এর দাম বেড়ে গেছে। বর্তমানে ফর্সা হওয়ার সাবান যদি কিনতে চাই তাহলে ১৫০ থেকে ৪০০টাকার মতো লাগবে। এটা হচ্ছে স্বাভাবিক ত্বক। বাজারে কিছু কিছু সাবান রয়েছে ৫০০  টাকার রুপোর দাম। আপনার যেরকম সামর্থ্য সেরকম দামের সাবান পাবেন।

    আরও পড়ুনঃ বাচ্চাদের জন্য কোন সাবান ভালো 

    সাবানের অপকারিতা

    সাবানের অপকারিতা ও রয়েছে। সকল কিছুর ভালো এবং খারাপ দিক রয়েছে। ঠিক তেমনিভাবে সাবান  এর কিছু অপকারিতার হয়েছে। বর্তমান সময়ে অনেক ভুয়া কোম্পানি রয়েছে। তারা বিভিন্ন কেমিক্যাল দিয়ে সাবান তৈরি করে।

    যার ফলে সাবানের গুণগত মান নষ্ট হচ্ছে। এবং আমরা ব্যবহারের ফলে শরীরে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। আরও সমস্যা হচ্ছে আমাদের নিজের। কেননা আমরা কোন কিছু বিচার না করে সাবান  নিয়ে আসি।

    অতিরিক্ত সাবান ব্যবহার  করলে ত্বকের সমস্যার সৃষ্টি হয়। কেননা সাবানে ক্ষার  থাকে।  এই কারণে বেশি ব্যবহারের ফলে ত্বক পাতলা হয়ে যায়। লালচে ভাব হয়ে থাকে। অতিরিক্ত কোনো কিছুই ভালো না।

     উপসংহার:

     ফর্সা হওয়ার সাবান এর অনেক ধরনের নাম রয়েছে। উপরে বর্তমান সময়ের কয়েকটি ভালো সাবানের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।  আপনি যদি ফর্সা হতে চান তাহলে এই সব গানগুলো ব্যবহার করতে পারেন। সাবান ব্যবহার হলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায় এবং  ফর্সা দেখায়।

     লেখার মাঝে কোন ভুল ত্রুটি থাকলে ক্ষমা করে দিবেন। পুরোপুরি লেখাটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ, ভালো থাকবেন।

    একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

    0 মন্তব্যসমূহ